শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০১:২৭ অপরাহ্ন

শিল্পবান্ধব স্মার্ট ভালুকা গড়ে তুলতে চান ————- ড. মামুদুল হাসান

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২৪, ৮.৪৫ এএম
  • ১০০ বার পাঠিত

বিশেষ প্রতিনিধি:- বেকারত্ব, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, মাদকমুক্ত সমাজ ও শিল্পবান্ধব স্মার্ট ভালুকা গড়ে তুলতে কাজ করতে চান, প্রফেসর ড. মাহমুদুল হাসান। ভালুকার ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য প্রতিষ্ঠা করতে চান একটি বিশ্ববিদ্যালয় ও একটি মেডিকেল কলেজ। বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, সাংস্কৃতিক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব প্রফেসর ড. মাহমুদুল হাসান সোহেল আকন্দ ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার উথুরা ইউনিয়নের উথুরা গ্রামের ঐতিহ্যবাহী আকন্দ পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। পিতা মহির উদ্দিন আকন্দ, মাতা সালেহা খাতুন। ছোট বেলা থেকেই মেধাবী ড. মাহমুদুল হাসান কৃতিত্বের সাথে বিএ (অনার্স) এম.এ, এম.এফ, এম.ফিল ও পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। একাধিক কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও ডিন হিসেবে দায়িত্ব পালন করার পাশাপাশি উত্তরা স্কুল এন্ড কলেজ এর চেয়ারম্যান ও ফারইস্ট ইন্টান্যশনাল ইউনিভার্সিটির ডিন হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি শিক্ষকতার পাশাপাশি শিক্ষা, সংস্কৃতি ও সামাজিক কর্মকান্ডে বিশেষ অবদান রাখায় একাধিক পুরস্কারে ভূষিত হন। ড. মাহমুদুল হাসান আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী।

উচ্চ শিক্ষিত, ভদ্র ও বিনয়ী ব্যক্তি হিসেবে ইতিমধ্যে সাধারণ ভোটারদের মাঝে তাকে নিয়ে বিশেষ আগ্রহ সৃষ্টি হয়েছে। একান্ত আলোচনায় ড. মাহমুদুল হাসান বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সারাদেশে উন্নয়ন অগ্রযাত্রা চলমান রয়েছে। তিনি বলেন, ভালুকার সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এম এ ওয়াহেদ সাহেব এর হাতকে আরো বেশি শক্তিশালী করে উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় আজকের ভালুকাকে সম্পৃক্ত করতে পারলে স্মার্ট ভালুকা গড়ে তুলা অনেক সহজ হয়ে উঠবে। ড. মাহমুদুল হাসান জানান, এছাড়াও পরিবেশ ও শিল্পবান্ধব একটি স্মার্ট ভালুকা গড়ে তুলতে তার একটি সুদূর প্রসারী পরিকল্পনা রয়েছে। তিনি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারলে ভালুকার বেকার সমস্যা সমাধানের লক্ষে যোগ্যতার ভিত্তিতে স্থানীয় মিল কারখানায় স্থানীয় বেকারদের চাকরীর ব্যবস্থা করা, শিল্প কারখানার বর্জ্য পরিশোধনের মাধ্যমে নির্গত করা, ভালুকার অভ্যন্তরিন রাস্তা সম্প্রসারণ করা। শিল্পকারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের জন্য কল্যাণকর পরিবেশ তৈরী করা, স্কুল কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ তৈরী, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা নয়, সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের স্বার্থ সংরক্ষণে সর্বত্র ভ্রাতৃত্ব প্রতিষ্ঠা ও দলমত নির্বিশেষে সর্বস্তরের জনগণকে সাথে নিয়ে সাংসদ এম এ ওয়াহেদ সাহেব এর পাশে থেকে একটি স্মার্ট ভালুকা গড়ে তলা। ভালুকার খাল বিল গুলিকে দূষণ মুক্তকরা ও খালের পানি কৃষকের ব্যবহার উপযোগী করা, সকল মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জিনকে ধর্মীয় উৎসবে সম্মানী ভাতার আওতায় আনা। অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানকেও সমমূল্যায়ন করা। ড. মাহমুদুল হাসান বলেন, আমার কোন চাওয়া পাওয়া নেই। বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এম এ ওয়াহেদ এর নেতৃত্বে আগামী প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য, পরিবেশ, শিল্প ও শিক্ষাবান্ধন একটি স্মার্ট ভালুকা গড়ে তুলাই আমার লক্ষ। এই লক্ষ বাস্তবায়নে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হিসেবে ড. মাহমুদুল হাসান সকলের দোয়া ও সহযোগীতা কামনা করেন।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

আরো পড়ুন.....

greenaronno.com

themes052459
© All rights reserved © 2018 মুক্তকণ্ঠ
Theme Download From Bangla Webs