শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০১:৫৩ অপরাহ্ন

ভালুকায় মহাসড়ক বিভাজকের বিলবোর্ড পড়ে মাথা ফাটলো সাংবাদিকের

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৪ মার্চ, ২০২৪, ২.৫৪ পিএম
  • ১২৫ বার পাঠিত

বিশেষ প্রতিনিধি:- ময়মনসিংহের ভালুকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহামহাসড়কের বিভাজকে রয়েছে বিভিন্ন ব্যক্তির শুভেচ্ছা/অভিনন্দন ফেস্টুন, বিলবোর্ড ও ব্যানার। এতে যানবাহন ও পথচারীদের চলাচল চরম ভাবে বিঘ্নিত হওয়ার পাশাপাশি ঘটছে দূর্হঘটনা। মহাসড়কের বিভাজকের ফেস্টুন/ব্যানার পড়ে শনিবার (২৩মার্চ) রাতে মাথা ফাটলো যায়যায়দিন পত্রিকার ভালুকা প্রতিনিধির।শনিবার (২৩ মার্চ) রাত সারে আটটার দিকে যায়যায়দিন পত্রিকার ভালুকা প্রতিনিধি সফিউল্লাহ আনসারী পেশাগত দায়িত্ব পালন শেষে বাড়ি ফেরার পথে ভালুকা বাসস্ট্যান্ডের উত্তর পাশে হৃদয় সুপার মার্কেটের সামনে মোটরবাইকের সামনে ফেস্টুন/ব্যানার পড়ে মাথার সামনের অংশ ফেটে যায়। ছিটকে পড়ে গিয়ে হাটু-কনুইসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর আঘাত প্রাপ্ত হয়। দুমড়ে মুচড়ে যায় মোটরসাইকেল। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। স্থানীয়রা জানান বর্ষা সিজনের শুরুতেই বৃষ্টি-ঝড় হওয়ায় মহাসড়কের বিভাজন ও দুই পাশে স্থাপিত এসব ফেস্টুন/ব্যানার ও তোরন ভেঙ্গে পড়ে প্রায়ই ঘটছে দূর্ঘটনা। এসব অপসারন করা না হলে ঝুঁকিতে পড়বে যাত্রী ও পথচারীরা।

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বিভাজকে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের বিলবোর্ড ও ব্যানার এতে যানবাহন ও পথচারীদের চলাচল চরম ভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে। ভালুকা পৌর শহরের সবখানেই এসব ফেস্টুন/ব্যানার জননিরাপত্তার কথা না ভেবেই এবং মহাসড়ক এলাকার প্রায় পুরো এলাকায় বিভাজকজুড়ে বসানো হয়েছে ব্যক্তিবিশেষের বিলবোর্ড, ব্যানার ও প্যানা। মহাসড়ক-বিভাজকে বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে কাঠ ও বাঁশ পুঁতে বিলবোর্ড, ব্যানার স্থাপন করা হয়েছে। ব্যানারগুলোর বেশির ভাগই মহাসড়কের উপর হেলে পড়েছে। এতে জননিরাপত্তা বিঘ্নিত হলেও প্রচারণাকারী ব্যক্তি ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা এবং প্রশাসনের কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। এ বিষয়ে সাপ্তাহিক আলোর ছোঁয়  সাংবাদিক খলিলুর রহমান বলেন, প্যানা, বিলবোর্ড ও ব্যানারের জন্য অনেক সময় চালক ও পথচারীরা যানবাহন দেখতে পান না যার কারণে মাঝেমধ্যেই দুর্ঘটনা ঘটছে। পথচারী আলম বলেন, ব্যানারগুলো বিভাজকের মাটির একটু ওপরে লাগানোর কারণে অনেক সময় দ্রুত বেগে আসা গাড়ি নজরে আসে না। একটু ঝড় বৃষ্টিতেই আচমকা মহাসড়কে এসে পড়ে। এতে দূর্ঘটনা ঘটে হরহামেশাই। ট্রাক চালক রতন মিয়া জানান, অনেক সময় ওই সব আকর্ষনীয় ব্যানার-বিলবোর্ডের দিকে গাড়িচালকদের নজর চলে যাওয়ায় প্রায় সময় দুর্ঘটনায় প্রাণহানির আশঙ্কা তৈরী হয়। মহাসড়কের বিভাজকে স্থাপিত এসব বিলবোর্ড-ব্যানার দ্রুত অপসারণের দাবিও জানান তিনি। ভালুকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলীনূর খান জানান, এসব বিলবোর্ড ও ব্যানার যত্রতত্র লাগানোর কারণে জননিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। পৌর সদরের জন্য পৌরসভার অনুমতি নিতে হয়, আর বাহিরেরগুলো আমার থেকে নেওয়ার কথা থাকলেও এমনটি হয়নি। আগামী আইনশৃঙ্খলা ও সমন্বয় মিটিং এ বিষয়ে আলোচনা করে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

আরো পড়ুন.....

greenaronno.com

themes052459
© All rights reserved © 2018 মুক্তকণ্ঠ
Theme Download From Bangla Webs