বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১১:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

শ্রীপুরে জমি নিয়ে বিরোধে গাছের সাথে শত্রুতা

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৯ আগস্ট, ২০২২, ১.৪২ পিএম
  • ২৪১ বার পাঠিত

টি.আই সানি,গাজীপুর প্রতিনিধিঃ- গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নে জমি সংক্রন্ত জেরে আকাশ মনি গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এর আগেও আঃ খালেক মিয়ার ঘর নির্মাণের কাজে বাঁধা প্রধান করেন একই এলাকার আঃ বারেক মিয়ার স্ত্রী ছালমা আক্তার ও তার ছেলে রাসেল মিয়া।

এ ঘটনায় মৃত আঃ রহিম উদ্দিনের ছেলে আঃ খালেক বাদী হয়ে গত ৪ আগস্ট ২০২২ইং শ্রীপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের শিমুলতলা গ্রামের মৃত আঃ রহিম উদ্দিনের ছেলে আঃ খালেক তার নিজের বসত বাড়ীর পুরাত দোয়ারের দক্ষিণ পার্শ্বে নতুন করে গরুর জন্য একটি গোয়াল ঘর নির্মাণ করতে গেলে আঃ বারেক মিয়ার স্ত্রী ছালমা আক্তার ও তার ছেলে রাসেল মিয়া ঘর নির্মাণের কাজে বাঁধা দেন এবং তার কিছু দিন পর আঃ বারেক মিয়ার স্ত্রী ছালমা আক্তার ও তার ছেলে রাসেল মিয়া আকাশ মনির ২০/২৫টি মোটা সাইজের বড় বড় গাছ বিক্রি করে দেন। গাছ বিক্রির বিষটি জানতে পেরে আঃ খালেক জমি সংক্রন্ত বিষয় সমাধান না হওয়া পর্যন্ত গাছ বিক্রি করতে পারবে না বলে বাঁধা প্রধান করেন।

আঃ খালেক বলেন, আঃ বারেক মিয়ার স্ত্রী ছালমা আক্তার ও তার ছেলে রাসেল মিয়া আমার সাথে  দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। ধামলই মৌজায় সাবেক এস এ দাগের ২১৯৬ এবং আর এস ৯৮৬৮ নং দাগে পৈত্রিক সুত্রে মালিক হয়ে ভোগ দখলে চাষাবাদ করে আসছি। হঠাৎ আঃ বারেক মিয়ার স্ত্রী ছালমা আক্তার ও তার ছেলে রাসেল মিয়া আমার জমিতে গাছ লাগিয়ে দখলের পায়তারা করছে। এবিষয়ে আমি      স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ প্রশাসনের কাছে সঠিক সমাধানের দাবি জানাচ্ছি।

এবিষয়ে আঃ বারেক মিয়ার স্ত্রী ছালমা আক্তার ও তার ছেলে রাসেল মিয়া বলেন, দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে,আমাদের জমি জোর করে দখল করে নেওয়ার পায়তারা করছে। এর আগেও খালেক আমাদের জমির কলা গাছ কেটে ফেলেছে। রাসেল মিয়া বলেন,আমার তিন ফুফু ও এক চাচার ভাগের জমি তাদের কাছ থেকে দলিলের মাধ্যমে আমরা ক্রয় করে নিয়েছি। আমরা তো আমাদের জমিতে আমরা গাছ লাগিয়েছি। আমাদের গাছ কাটতে বাঁধা দিয়েছে আমার জেঠা আব্দুল খালেক।

এবিষয়ে শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন,জমি সংক্রন্ত শালিস বিচার থানায় গ্রহন করা হয়না, আর গাছ কাটার বিষয়ে লিখিত কোন অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে বিষয়টি দেখবো ইনশাআল্লাহ্।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

আরো পড়ুন.....

greenaronno.com

themes052459
© All rights reserved © 2018 মুক্তকণ্ঠ
Theme Download From Bangla Webs