শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভালুকা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজ্বী রফিকের কর্মী সভা অনুষ্ঠিত ভালুকায় শিয়াল তাড়াতে গিয়ে স্কুল ছাত্রীর মৃত্যু সরকার ঘোষিত নতুন বেতন কাঠামো অনুযায়ী বেতন ভাতার দাবীতে ভালুকায় শ্রমিকদের বিক্ষোভ ভালুকায় কৃষকদের মাঝে কৃষি উপকরণ বিতরণ ময়মনসিংহের যুব মহিলা লীগের নেত্রী রানী’র সাইবার মামলার রহস্য ফাঁস ভালুকায় ডিবির হাতে হেরোইনসহ আটক-৩ ভালুকায় বিশ্ব মা দিবস উদযাপন ভালুকায় ডায়মন্ড লাইফ ইন্সুইরেন্সে মৃত্যু দাবী চেক বিতরণ ও আলোচনা সভা ভালুকা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন যারা ভালুকায় পরকিয়া সন্দেহে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করেছে স্বামী

পাবনায় ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা শুরু

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৬.২২ এএম
  • ৬৯৯ বার পাঠিত

শাহজাহান সরকার,পাবনা প্রতিনিধি: জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেল স্মৃতি স্মরণে পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার ইছামতি নদীতে শুরু হয়েছে ১০ দিনব্যাপী গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা। সাঁথিয়া পৌর সভার উদ্যোগে ১৮ সেপ্টেম্বর বিকালে এই নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসুল হক টুকু। জেলা ও জেলার বাহির থেকে প্রায় ২০টি নৌকা এবারের প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছে। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, নৌকা বাইচ আমাদের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির মূল অনুষঙ্গ। এই ঐতিহ্যকে ধরে রাখা আমাদের সবার দায়িত্ব। এতে গ্রাম বাংলার সাধারণ মানুষ আনন্দ উপভোগ করার সুযোগ পান। ধারাবাহিক রক্ষা করে প্রতি বছরই ইছামতি নদীতে নৌকা বাইচ আয়োজনে সম্পৃক্ত থাকার ঘোষণা দেন। আয়োজকরা জানান, সম্প্রতি করোনা সংক্রমন নিন্মমুখি হওয়ায় ব্যপক উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্যদিয়ে এবারের এই নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছন সাঁথিয়া পৌরসভা। এই নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা দেখতে স্থানীয়রাসহ আশে পাশের গ্রাম ও জেলার সাধারন মানুষ এসেছেন নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা উপভোগ করতে। জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে ১০টি নৌকা ও জেলার বাহির থেকে আরো ১০টি নৌকা এটই প্রতিযোগিতা অংশ গ্রহণ করেছে। ছন্দের তালে বাহারি পোষাকে গানের তালে নৌকা নিয়ে আসে প্রতিযোগিরা। শুধু জেলার মধ্যেই নয় তারা বাহিরের জেলাতেই অংশ গ্রহণ করে থাকেন। প্রতিটি নৌকাতে ৬০জন করে মাল্লার ও দুইজন ছন্দের লোক একজন মাঝি দোয়া কালমা পরে উঠে পরেন নৌকাতে। দুপুর থেকে তারা নদীতে নৌকা নিয়ে দর্শকদের আনান্দ দিতে থাকেন। নদীর পূর্ব পারে প্রায় দুই কিঃমিঃ দূর থেকে পশ্চিশ পারের মঞ্চ প্রাঙ্গনে আসতে হয় প্রতিটি নৌকাকে।উদ্বোধনী বাইচে ভাই ভাই এক্সপ্রেস বনাম সরদার এক্সপ্রেস অংশ গ্রহণ করেন। পরবর্তীতে হুইখালী এক্সপ্রেস বনাম বাগচী চ্যালেঞ্জার, পরে ইছামতি এক্সপ্র্রেস বনাম সলঙ্গি এক্সপ্রেস এবং প্রথম দিনের শেষে সমযে মায়ের দোয়া এক্সপ্রেস বনাম শেরে বাংলা এক্সপ্রেস প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহন করেন। জেলার নয়টি উপজেলার মধ্যে চাটমোহর, ভাঙ্গুরা, ফরিদপুর, সুজানগর ও সাঁথিয়া উপজেলা নৌকা রয়েছে। এছাড়া জেলার বাহিরে সিরাজগঞ্জ, উল্লাপাড়া, নাটোর, রাজবাড়ি, কুষ্টিয় থেকে বাইচ এর নৌকা প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছে। প্রতিদিন বিকেল তিনটা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। পয়েন্ট ভিত্তিক এই নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা আগামী ২৮ সেপ্টেম্ব সমাপ্ত হবে।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

আরো পড়ুন.....

greenaronno.com

themes052459
© All rights reserved © 2018 মুক্তকণ্ঠ
Theme Download From Bangla Webs