মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ত্রিশালে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ভালুকায় প্রাইভেটকারের ভিতরে ধর্ষণের ঘটনায় আটক ১ তিন বছর ধরে কাগজের নিচে বসবাস ভয়ে স্ত্রী সন্তান নিয়ে ঘর ছাড়া ময়মনসিংহ শিল্প এলাকায় শ্রমিকের শতভাগ বেতন ও ভাতা নিশ্চিত করা হয়েছে! …পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান  ভালুকায় ১ লাখ নিম্নআয়ের মানুষের মাঝে হাজ্বী রফিকের ঈদ উপহার বিতরণ ভালুকায় ইয়াবা ও হেরোইনসহ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার ভালুকায় কবি’দের আড্ডায় কবিতা পাঠ ও ইফতার ত্রিশালে খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ের আয়োজনে অবহিত করণসভা অনুষ্ঠিত ভালুকা যুবদলের ইফতার অনুষ্ঠিত ভালুকায় সাত হাজার পরিবারকে হাজ্বী রফিকের ঈদ উপহার বিতরণ

সামান্য বৃষ্টিতেই সুজানগরের চরদুলাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ পুকুরে পরিনত 

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯.৫২ এএম
  • ২৫১ বার পাঠিত

শাহজাহান সরকার,পাবনা প্রতিনিধিঃ পাবনার সুজানগর উপজেলার দুলাই ইউনিয়নের চরদুলাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে জলাবদ্ধতার কারণে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এতে লেখাপড়া বিঘ্ন ঘটছে। মাঠের ভেতর দিয়ে বিদ্যালয়ে যাতায়াতের একমাত্র পথ হওয়াতে সমস্যায় পরতে হচ্ছে। দীর্ঘ চার বছর যাবৎ সামান্য বৃষ্টি হলেই মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয় পানি নিষ্কাশনের কোনো ব্যাবস্হা না থাকায় এ অবস্হা।  সুষ্ঠুভাবে বিদ্যালয় যাতায়াতের কোনো সুযোগ থাকে না। দীর্ঘদিন যাবৎ করোনাকালীন যদিও স্কুল বন্ধ ছিল তারপরেও শিক্ষক ও অভিভাবকদের বিদ্যালয়ে  আসতে হচ্ছে। সরেজমিন পরিদর্শন করে দেখা গেছে পানি নিষ্কাশনের জন্য মাঠের পাশে একটি ছোট ব্রীজ ছিল সেটা দিয়েই মাঠের পানি বের হয়ে যেত কিন্তু জনগণের বসবাসের কারণে ভিটাবাড়ি তৈরির কারনে ব্রিজের মুখ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে অল্প বৃষ্টি হলেই মাঠে পানি জমে যায়। এতে করে বিদ্যালয়ের শিশুদের একমাত্র খেলার মাঠ খেলাধুলার অনুপযোগী হয়ে পড়ে শুধু এ বিদ্যালয়ের শিশুরাই এ মাঠে খেলাধুলা করে না আশেপাশের বসবাসকারী ছেলেমেয়েরাও এই মাঠে খেলাধুলা করে আসছিল দীর্ঘদিন যাবৎ কিন্তু বিগত কয়েক বছর ধরেই মাঠটি একেবারে খেলাধুলার অনুপযোগী হয়ে পরেছে। বিদ্যালয় চলাকালীন শিশুরা বিদ্যালয়ে আসতে প্রায়ই বিভিন্ন রকম ছোটখাটো দুর্ঘটনায় পতিত হত। সম্প্রতি সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার জনাব বিধান চন্দ্র ঘোষ বিদ্যালয় পরিদর্শন করতে আসলে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন। পরে নৌকাযোগে কোনরকমে বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে পৌঁছান। বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক রেহানা ইয়াসমিন জানান  আমাদের বিদ্যালয় বর্তমানে মোট ৩৮৬ জন ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে এবং ১০ জন শিক্ষক শিক্ষিকা রয়েছে এর মধ্যে  ৯ জনই শিক্ষিকা মাত্র একজন শিক্ষক। বছরের দীর্ঘ সময় জলাবদ্ধ থাকায় মেয়েদের জন্য বিদ্যালয় পৌঁছানো খুবই কষ্টদায়ক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।বিদ্যালয়ের একমাত্র সহকারি শিক্ষক চঞ্চল কুমার জানান আমরা হাজতে বসবাসের মত বড় কষ্টে আছি।  এরূপ দীর্ঘদিনের সমস্যার কারণে বিদ্যালয়ের পাশে একটি অস্থায়ী ঘর তুলে বিদ্যালয়ের অফিশিয়াল কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এ অবস্থার সৃষ্টি তে এই বিদ্যালয়ে শিক্ষক শিক্ষিকা আসতে অসন্তোস প্রকাশ করেন। স্থানীয় অভিভাবক জনসাধারণ ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিসহ কর্তৃপক্ষের নিকট সকলের একটাই দাবি এই বিদ্যালয় মাঠের সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আসুক এটাই তাদের একমাত্র প্রাণের দাবি।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

আরো পড়ুন.....

greenaronno.com

themes052459
© All rights reserved © 2018 মুক্তকণ্ঠ
Theme Download From Bangla Webs