বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১১:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

পোশাক শ্রমিককে শ্লীলতাহানী চেষ্টার অভিযাগে আটক ১

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৪ জুলাই, ২০২১, ৯.১০ এএম
  • ২৮৯ বার পাঠিত

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহের ভালুকায় এক পোশাক শ্রমিককে শ্লীলতাহানী চেষ্টার অভিযাগে থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে ভালুকা উপজলার সদর ইউনিয়নের মেহরাবাড়ি নামক স্থানে।থানার মামলা সূত্রে জানা যায়, নির্যাতিতা নারী একজন পোশাককর্মী। সে জামিরদিয়া গ্রামের পিএনিট কম্পোজিট কারখানায় অপারেটর পদে চাকরি করেন। ঘটনার সময় ওই নারী পোষাক কর্মী বাড়ী থেকে স্কয়ার মাষ্টারবাড়ী যাবার উদ্দ্যেশে পাবলিক মিনিবাস যোগে রওয়ানা হয়।রাত ৯টার দিকে ভালুকা বাসস্ট্যান্ড এসে পৌছালে বাস আর যাবে না বলে জানান। অতঃপর বাস থেকে নেমে সে একটি লেগুনা গাড়িতে উঠে অফিসের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। (যার রেজিঃ কুমিল্লা-ছ-১১-০২৮১)।লেগুনা ড্রাইভার মোঃ জাহিদ হাসানের পাশের সিটে বসা ছিলো আল-আমিন এবং পিছনের সিটে পোষাক কর্মী সাথে জিয়ারুল ইসলাম ও সাগর বসা ছিল। লেগুনা গাড়ী ভালুকা বাসস্ট্যান্ড থেকে মাষ্টারবাড়ীর উদ্দ্যেশে ছেড়ে মেহেরাবাড়ীর আসার পর লেগুনার ড্রাইভার মোঃ জাহিদ হাসান লেগুনা গাড়ী লাভেলো কারখানার রাস্তায় প্রবেশ করে। তখন পোষাক কর্মী চিৎকার করে বলতে থাকে গাড়ি কোথায় নিয়ে যাচ্ছেন?পোষাক কর্মীর চিৎকারে তারা কোন কর্ণপাত করেনি। লেগুনা ড্রাইভার জাহিদ হাসান মেহেরাবাড়ী বায়তুন নূর জামে মসজিদের উত্তর পাশে পাকা রাস্তার উপর গাড়িটি থামায়। অতি দ্রুত পোষাক কর্মী গাড়ী থকে নেমে চলে যেতে চাইলে লেগুনা ড্রাইভার জাহিদ হাসান, আল-আমিন, জিয়ারুল সাগর ও অজ্ঞাতনামা আরো ১জন বিভিন্ন ধরনের অশ্লীল ইঙ্গিতপূর্ণ কথা-বার্তা বলেতে থাকে এবং ওই নারীর ওড়না ধরে টানটানি করে। শরীরের বিভিন্ন স্পর্শ কাতর স্থানে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করে। তখন ওই নারীর চিৎকারে আশপাশের স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে। পরে ঘটনাস্থল থেকে মোঃ জাহিদ হাসানকে আটক করে। অন্যরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। ওই ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে রাতেই ভালুকা মডেল থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন। তারা হলো, ঝালপাজা গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে জাহিদ হাসান(১৯), নন্দীবাড়ির আল-আমীন(২৫), ত্রিশাল রাঘামারার জিয়ারুল ইসলাম(১৯), একই গ্রামর সাগর(২০) ও অজ্ঞাতনামা আরও একজনকে আসামি করা হয়েছে। স্থানীয়রা লেগুনা চালক জাহিদকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছে এবং পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করেছেন। ভালুকা মডেল থানার( তদন্তকারী) উপ-পরিদর্শক কাজল জানান, ওই ঘটনায় মামলা হয়েছে এবং একজনকে গ্রেফতার করে আদালত পাঠানা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলছে।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

আরো পড়ুন.....

greenaronno.com

themes052459
© All rights reserved © 2018 মুক্তকণ্ঠ
Theme Download From Bangla Webs