বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১১:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

করোনা আতঙ্কে বেনাপোলবাসি তারপরও নেই সচেতনতা

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১ জুন, ২০২১, ১২.৩৩ পিএম
  • ২৬৩ বার পাঠিত

ফারুক হাসান,বেনাপোল প্রতিনিধিঃ করোনা আতংঙ্কে বেনাপোলবাসি তারপরও নেই সচেতনতা গত একমাসে বেনাপোল দিয়ে দেশে ফিরেছে ৪হাজার ২শ জন ৪৭জন করোনায় আক্রান্ত ভারতে আটকে পড়া পাসপোর্ট যাত্রী ,ভারতীয় ট্রাক চালক ও সহকারিদের কারনে বেনাপোল বন্দর এলাকা প্রতিমুর্হুত এগিয়ে যাচ্ছে করোনা ঝুঁকিতে। বন্দর এলাকায় বাড়ছে করোনা সংক্রমিত রোগির সংখ্যা। বিশেষ করে ভারত সীমান্ত লাগোয়া বড়আঁচড়া গ্রামে বেড়েছে করোনা রোগির সংখ্যা। বন্দর এলাকায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে মনিটরিং জোরদার করা হচ্ছে। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে ভারতীয় ট্রাকচালকদের কাছে পন্য বিক্রি করায় গত ৩০ মে বন্দর এলাকার ৫ দোকানিতে ৬ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি’কে করোনা প্রতিরোধে বন্দর এলাকায় টহলের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসি। করোনা সংক্রমনে যশোর রেডজোন ভুক্ত হওয়ার খবরে গতকাল থেকে অকারনে ঘরের বাইরে না আসার জন্য মাইকিং করছে বেনাপোল ট্রান্সপোর্ট এ্যাসোসিয়েশন। তারপরও থেমে নেই মানুষ। স্রোতের মত যাচ্ছে বাজারে। গত ৩০ মে পাওয়া তথ্য মতে বেনাপোলে করোনা আক্রান্তে সংখ্যা ১২ জন। শার্শা উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩০। ভারত থেকে বিশেষ অনুমতি নিয়ে গত ৩৫ দিনে দেশে ফিরেছেন ৪ হাজার ২ শ জন বাংলাদেশি। ভারত ফেরত এ সব পাসপোর্ট যাত্রীদের মধ্যে ৪৭ জনের শরীরে করোনায় আক্রান্ত। আক্রান্তদের মধ্যে ৬ মাস ও ১১ বছরের দু’জন শিশু রয়েছে। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কতৃর্পক্ষ ভারত ফেরত আক্রান্তদের মধ্যে ১৫ জনের শরীরে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট করোনা উপস্থিতি সনাক্ত করেছেন।এদিকে গত ২৬ এপ্রিল থেকে ৩১ মে পর্যন্ত ভারত থেকে দেশে ফিরেছে ৭৪০জন পাসপোর্ট যাত্রী।তার মধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা ১৩ জন ও ভারত ফেরত ১৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৫ জন ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের করোনায় আক্রান্ত। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা জানান, ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষে করোনা নেগেটিভ পাওয়া সাপেক্ষে যাত্রিদের কে ছেড়ে দেয়া হচ্ছে।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

আরো পড়ুন.....

greenaronno.com

themes052459
© All rights reserved © 2018 মুক্তকণ্ঠ
Theme Download From Bangla Webs