বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৪৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভালুকায় প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ ভালুকায় যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল ভালুকায় বকেয়া বেতনের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ ভালুকায় শহীদ দবিস পালিত ভালুকায় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রস্তুতি মূলক সভা অনুষ্ঠিত ভালুকায় বনবিভাগের অবৈধ করাতকল উচ্ছেদ মালামাল জব্দ এবছর বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে কবি ও ঔপন্যাসিক এরশাদ আহমেদ এর রোমান্টিক উপন্যাস “মনপ্রিয়া” ভালুকায় সুতার গোডাউনে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ভালুকায় ৬ অটোরিকশাসহ চোরচক্রের ৪ সদস্য আটক ভালুকায় মাইক্রোবাস খাদে প্রান গেলো পুলিশ কর্মকর্তার

ভালুকায় মাঠপর্যায়ে ১৩ কর্মকর্তা ছারাই চলছে কৃষি সেবা

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ৫.২৫ এএম
  • ২৪৪ বার পাঠিত

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলা কৃষি বিভাগের মাঠ পর্যায়ে ১৩ উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ছাড়াই জোড়া তালি দিয়ে চলছে কৃষি সেবা কার্যক্রম। ফলে তদারকির অভাব, বেশী মূল্যে সার ক্রয় সহ নানা সমস্যায় বোরো চাষীরা। উপজেলা কৃষি বিভাগের তথ্য মতে ভালুকা উপজেলার ১১ টি ইউনিয়নে পৌরসভার ১ টি সহ মোট ৩৪ টি বøকে ৩৪ জন উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা দায়িত্ব পালনের কথা থাকলেও ১২ জন অবসর ও ১ জন বদলী জনিত কারনে ১৩ টি ব্লকের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তার পদ খালি রয়েছে। ওই সকল খালি বøক গুলিতে অন্য ব্লকের কর্মকর্তাগণ অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন। রাজৈ ইউনিয়নে ২ টি হবিরবাড়ী ১ টি কাচিনা ১ টি ডাকাতিয়া ২টি ভালুকা ২ টি ধীতপুর ২ টি ভরাডোবা ১ টি মেদুয়ারী ১ টি ও উথুরা ইউনিয়নে ১ টি সহ মোট ১৩ টি ব্লকে উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা না থাকায় অন্য ব্লকের উপ সহকারী কৃষি কর্মকতাগণ অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করে চলেছেন। যেমন রাজৈ ইউনিয়নের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান তার নিজেরটি সহ মোট ৩ টি ব্লকের দায়িত্বে রয়েছেন। তেমনি ডাকাতিয়া ইউনিয়নে আবদুল্লাহ আল মাসুদ ডাকাতিয়া, আঙ্গারগাড়া ও কাতলামারি সহ ৩ টি ব্লকের দায়িত্ব পালন করছেন। হবিরবাড়ী ব্লকের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম অতিরিক্ত ঝালপাজা ব্লকের দায়িত্ব পালন করছেন। এভাবেই খালি হওয়া ১৩ টি ব্লকের কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। এ অবস্থায় চলতি বোরো মৌসুমে উল্লেখিত বøক গুলির আওতায় যে সকল চাষীরা রয়েছেন তারা অনেকেই অভিযোগ করেছেন কৃষি বিভাগের কারো সাথে তাদের যোগাযোগ নেই কারন তারা মাঠে আসেননা। ৬ ফেব্রুয়ারী শনিবার উপজেলার ডাকাতিয়া ইউনিয়নে গেলে ডাকাতিয়া ও আঙ্গারগাড়া ব্লকের প্রায় ৫০/৬০ জন চাষী জানান চলতি বোরো আবাদ শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত তারা কৃষি বিভাগের কোন লোক জনের দেখা পাননি। ডাকাতিয়া হিজলপিাড়া গ্রামের কৃষক আব্দুর রহীম জানান কৃষি অফিসার এলাকায় আসেন কিনা এ ব্যাপারে তার কোন ধারনা নেই। আঙ্গারগাড়া গ্রামের আবুল হোসেন জানান তিনি ও তার ভাই বিল্লাল হোসেন ২ একর জমিতে বোরো আবাদ করছেন সম্পুর্ণ নিজস্ব পদ্ধতিতে কৃষি বিভাগের পরামর্শ ছাড়াই। ডাকাতিয়া সামালিয়াপাড়া গ্রামের আব্দুল খালেক জানান তিনি ৩ একর জমিতে বোরো আবাদ করেছেন এ পর্যন্ত কৃষি বিভাগের কোন পরামর্শ পাননি। তিনি স্থানীয় দোকান হতে টিএসপি (বাংলা) এক বস্তা সার কিনেছেন ১৭৫০ টাকা দিয়ে। তারা দোকানীদের নির্ধারিত মূল্যে সার কিনে জমিতে প্রয়োগ করছেন। খোজ নিয়ে জানাগেছে ডাকাতিয়া, আঙ্গারগাড়া ও কাতলামারী তিনটি বøকের দায়িত্ব পালন করছেন কাতলামরী ব্লকের দায়িত্বে নিয়োজিত আবদুল্লা আল মাসুদ নামে একজন উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা। মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান ডাকাতিয়া ইউনিয়নের কাতলামরী বøকের দায়িত্বে থাকা অবস্থায় আঙ্গারগাড়া ও ডাকাতিয়া বøকের অতিরিক্ত দায়িত্ব তিনি পালন করছেন। কারন ওই দুই ব্লকের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আঙ্গারগাড়া আবুল কাসেম ও ডাকাতিয়া মজিবর রহমান অবসর জনিত কারনে ব্লক দুটি খালি হয়। এ ব্যাপারে রোববার সকাল সারে ৯ টার দিকে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নার্গিস আক্তারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান লোকবল কম রয়েছে ভালুকায় ৩৪ জনের মধ্যে ১৩ জন উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা না থাকায় সংশ্লিষ্ট ব্লক গুলির দায়িত্ব পালন করছেন অন্য ব্লকের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ। যে কারনে একজনের পক্ষে দু’তিনটি ব্লকের দায়িত্ব পালন অনেকটাই দুরুহ ব্যাপার হয়ে যায়। তার পরেও কৃষকদের সাথে যথাসাধ্য যোগাযোগ রক্ষা করে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

আরো পড়ুন.....

greenaronno.com

themes052459
© All rights reserved © 2018 মুক্তকণ্ঠ
Theme Download From Bangla Webs